বাল্য বিবাহ মুক্ত ময়মনসিংহ বিভাগ গড়ে তোলার লক্ষ্যে নেত্রকোনায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি, মানববন্ধন গণস্বাক্ষরতা ও শপথবাক্য পাঠ

বাল্য বিবাহ মুক্ত ময়মনসিংহ বিভাগ গড়ে তোলার লক্ষ্যে নেত্রকোনায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি, মানববন্ধন গণস্বাক্ষরতা ও শপথবাক্য পাঠ

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা ঃ ‘বাল্য বিবাহকে না বলি, যেখানেই বাল্য বিবাহ, সেখানেই প্রতিরোধ’ এই দীপ্ত অঙ্গীকারের মধ্য দিয়ে বুধবার নেত্রকোনায় বর্ণাঢ্য র‌্যালি, মানববন্ধন, গণস্বাক্ষরতা ও শপথবাক্য পাঠ অনুষ্ঠিত হয়।
      জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশত বার্ষিকী উপলক্ষ্যে মুজিব বর্ষকে সামনে রেখে ‘বাল্য বিবাহ মুক্ত ময়মনসিংহ বিভাগ’ গড়ে তোলার লক্ষ্যে নেত্রকোনা জেলা প্রশাসন এইসব কর্মসূচীর আয়োজন করে।
     সকাল সাড়ে ১০টা থেকে ১১টা পর্যন্ত জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের সামনে বিশাল মানববন্ধন কর্মসূচীতে সকল সরকারী বেসরকারী প্রতিষ্ঠান, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশ গ্রহন করেন। পরে সেখান থেকে একটি বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের হয়ে মোক্তারপাড়া মাঠে এসে শেষ হয়। সেখানে গণস্বাক্ষর কর্মসূচী পালন পাশাপাশি সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বাল্য বিবাহের কুফল এবং বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে করণীয় সম্পর্কে বক্তব্য রাখেন জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম, পুলিশ সুপার আকবর আলী মুন্সী, প্রেসক্লাব সম্পাদক শ্যামলেন্দু পাল, জেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা ফেরদৌসী বেগম, জেলা মহিলা পরিষদের সভাপতি রেহানা সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক তাহেজা বেগম, জেলা মহিলা সংস্থার চেয়ারম্যান সৈয়দা বিউটী, নারী নেত্রী নূরজাহান বেগম, নারী ও শিশু নির্যাতন আদালতের বিশেষ পিপি এডভোকেট রাসেল আহমেদ খান, জেলা কাজী সমিতির সভাপতি কামাল উদ্দিন ও বাংলাদেশ নারী প্রগতি সংঘের ব্যবস্থাপক মৃনাল কান্তি চক্রবর্তী প্রমূখ। পরে সেখানে উপস্থিত সকল কর্মকর্তা-কর্মচারী, ছাত্র শিক্ষক অভিভাবক ও নেতৃবৃন্দকে নিয়ে বাল্য বিবাহ প্রতিরোধে শপথ বাক্য পাঠ করার জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম। তারা এ সময় বাল্য বিবাহকে লাল কার্ড প্রদর্শণ করে বাল্য বিবাহ মুক্ত ময়মনসিংহ বিভাগ গড়ে তোলার দীপ্ত অঙ্গীকার করেন।