"সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে করোনা ভাইরাস মুক্ত আগামীর নেত্রকোণা"

"সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে করোনা ভাইরাস মুক্ত আগামীর নেত্রকোণা"

দিলওয়ার খান 
করুণা ভাইরাসজনিত  রোগ কোভিড -১৯  বিস্তার প্রতিরোধে  জনসচেতনতা মূলক  কার্যক্রম  সক্রিয় রাখাসহ  নানা উদ্যোগ গ্রহণ করেছে নেত্রকোনা জেলা প্রশাসন। অভিনন্দন ও সাধুবাদ জানিয়েছে নেত্রকোনা জনগণ এই গৃহীত উদ্যোগকে। জনগণের মাঝে স্বাস্থ্যবিধি  অনুসরণ  ও সচেতনতা সৃষ্টি  করোনা সংক্রমণের  লক্ষণ যুক্ত কোন ব্যক্তি  বা করোনা সন্দেহ  ভাজন ব্যক্তি কে  পরীক্ষার জন্য  উদ্বুদ্ধ করা,  প্রয়োজনে  গরিব রোগীকে  বিনা খরচে  টেস্টের ব্যবস্থা গ্রহণ।  কোভিড ১৯ পজিটিভ শনাক্তকৃত রোগীকে  সার্বিক সহযোগিতা প্রদান।  আইসোলেশন  নিশ্চিতকরন  এবং করুণা রোগীর সংস্পর্শে  আসা সকলকে কোয়ারেন্টাইন নিশ্চিতকরণে নেত্রকোনা জেলা প্রশাসন  উদ্যোগ গ্রহণ করেছেন। করোনা  রোগ প্রতিরোধে   চলমান কার্যক্রমকে গতিশীল করার জন্য  প্রশাসন, সুধী সমাজ, এনজিও, রেড ক্রিসেন্টসোসাইটি, গণমাধ্যমকর্মী এক যোগে কাজ করে যাচ্ছে। ১০ সেপ্টেম্বর সমস্ত জেলায়,উপজেলা, ইউনিয়ন পর্যায়ে সচেতন হওয়ার জন্য ১ লক্ষ মাক্স বিতরণ করা হয়েছে। এরই সাথে সচেতন হওয়ার জন্য উৎসাহিত করা হয়েছে। নেত্রকোনার চল্লিশটি ওয়াস পয়েন্ট সচল রাখার ব্যবস্থা গ্রহন করা হয়েছে। হ্যান্ড সেনিটাইজার বিতরণ করা হবে। সেপ্টেম্বর, পুরো মাস  নামাজের পর ইমাম গন সচেতনা মুলক বক্তব্য প্রদান করবেন। যানবাহন ওব্যবসা প্রতিষ্টান ও হোটেল রেস্টুরেন্ট স্বাস্থ্য বিধি না মানলে প্রয়োজনে মোবাইল কোর্ট অব্যাহত থাকবে।৯ সেপ্টম্বর নেত্রকোণা জেলা প্রশাসক কাজি মো: আব্দুর  রহমান প্রেস কনফারেন্সে এর মাধ্যমে নেত্রকোণা  বাসীর উদ্দেশ্যে এ তথ্য প্রদান করেন এবং নেত্রকোণা কে করোনা মুক্ত রাখার জন্য সকলের সহযোগীতা কামনা করেন। 
আগামীর  নেত্রকোণা  হবে করোনা মুক্ত নেত্রকোণা। করোনাভাইরাস  মুক্ত নেত্রকোণা  ঘোষনায় আমরা এক যোগে কাজ করি এবং করোনাভাইরাস  মুক্ত থাকি। ( জেষ্ট সাংবাদিক ও চেয়ারম্যান এআরএফবি)