কৃষকের ধান কেটে দিল খালিশাপাড়া শাপলা সমাজ কল্যাণ সংঘ

কৃষকের ধান কেটে দিল খালিশাপাড়া শাপলা সমাজ কল্যাণ সংঘ

দুর্গাপুর প্রতিনিধি: লকডাউনে শ্রমিক ও অর্থ সংকটের কারণে ধান কাটতে পারছিলেন না বিরিশিরি ইউনিয়নের খালিশাপাড়া গ্রামের বেশ কয়েকজন কৃষক। তাদের ধান ক্ষেতেই নষ্ট হওয়ার উপক্রম হচ্ছিল। এ খবর পেয়ে ওই এলাকার খালিশাপাড়া শাপলা সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ অন্যান্য সদস্যদের নিয়ে শনিবার থেকে সপ্তাহব্যাপি কৃষকদের জমির পাকা ধান কেটে দেয়া শুরু করেছেন।

ওই এলাকার কৃষক আব্দুল মজিদ বলেন, অন্যের চার বিঘা জমি বর্গা নিয়ে ধান চাষ করছিলেন তিনি। এই লকডাউনের মধ্যে ধান কাটার উপযুক্ত সময় হলেও শ্রমিক সংকটের কারণে পাকাধান কাটতে পারছিলাম না। এছাড়াও এলাকায় যে শ্রমিক পাওয়া যায় তাদের মজুরি খুব বেশি। ক্ষেতের ধান পাকার পরও তা কাটতে না পারায় কিছুটা ক্ষতির শঙ্কায় ছিলেন। আমার এমন অসহায়ত্বের কথা শুনে খালিশাপাড়া শাপলা সমাজ কল্যাণ সংঘের সভাপতি তার সংঘের নেতাকর্মী সঙ্গে নিয়ে আমার প্রায় ১ বিঘা ক্ষেতের ধান কেটে দেন। তারা যেভাবে আমার ধান কেটে সাহায্য করেছেন তা আমি কখনও ভুলব না।

ওই সংঘের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ রোববার বিকেলে সাংবাদিকদের বলেন, ধান কাটার প্রতি মৌসুমেই আমাদের এলাকা থেকে শ্রমিকগন অন্য এলাকাতে ধান কাটতে যান। এবার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে ঘোষিত লকডাউনে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ এর ফলে কৃষকদের অসহায়ত্বের কথা শুনে সংগঠনের নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে তাদের খেতের পাকাধান কেটে দেয়ার কার্যক্রম শুরু করেছি। এ সংকটকালে প্রয়োজনে অন্যদের ধানও কেটে দেয়া হবে। এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, মোখলেছুর রহমান, নুরে আলম হুমায়ুন, আব্দুল লতিফ মেম্বার, মো. সেলিম, মো. আজিজুল প্রমুখ।