নেত্রকোনার দুর্গাপুরে পিতার  মোগরের আঘাতে পুত্রের নির্মম মৃত্যু

নেত্রকোনার দুর্গাপুরে পিতার  মোগরের আঘাতে পুত্রের নির্মম মৃত্যু


 পারিবারিক কলহের জের ধরে পিতার মোগরের আঘাতে পুত্রের নির্মম মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে শনিবার রাত আনুমানিক সাড়ে ১১টার দিকে নেত্রকোনা জেলার দুর্গাপুর উপজেলার কাকৈরগড়া ইউনিয়নের তিতারজান গ্রামে পিতার নিজ বসত ঘরে।
     স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, তিতারজান গ্রামের আলী আমজাদের পুত্র আব্দুল হক (২৮) মাদক সেবনের জন্য প্রায়শই পিতার কাছে টাকা পয়সা চাইতো। টাকা পয়সা না দিলে তাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ, মানসিক অত্যাচার নির্যাতনসহ ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করতো। শনিবার রাতেও আব্দুল হক মাদক সেবনের জন্য পিতা আলী আমজাদের কাছে টাকা চায়। পিতা টাকা দিতে অস্বীকার করে। এতে ক্ষিপ্ত হয়ে আব্দুল হক গালিগালাজসহ ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করা শুরু করে। এক পর্যায়ে পিতা উত্তেজিত হয়ে ঘরে রক্ষিত মোগর (কাঠের তৈরী শক্ত হাতল) দিয়ে মাথায় আঘাত করলে পুত্র ঘটনাস্থলেই মারা যায়। পরে পিতা পুত্রের লাশ গুম করার জন্য নিজ বসত ঘরের বারান্দা কক্ষে মাটির নীচে ফুতে ফেলে। সকালে বিষয়টি জানাজানি হলে এলাকাবাসী ঘাতক পিতাকে আটক করে থানা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে মাটির নীচ থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের জন্য নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করে।
     এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ শাহ্ নূর এ আলমের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, পিতা আলী আমজাদকে আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়েছে।