নান্দাইল প্রাণ ফিরে পেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

নান্দাইল প্রাণ ফিরে পেল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

নান্দাইল  প্রতিনিধি: করোনা মহামারীতে দীর্ঘ ১৮ মাস পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়াতে শিক্ষার্থীরা তাদের আপন প্রতিষ্ঠানে ফিরেছে। দীর্ঘদিন শিক্ষাপ্রতিষ্টান বন্ধ থাকায় পাঠদানের আনন্দ ম্নান হয়ে গেছিল। রবিবার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়ায় শিক্ষার্থীদের মাঝে আনন্দের সুভাস বইছে।নান্দাইল উপজেলার প্রাথমিক ১৭৮ টি মাধ্যমিক ৩৬ টি বিদ্যালয়ে প্রায় ৮৭ হাজার শিক্ষার্থী রয়েছে। নান্দাইল উপজেলায়  সকালে বেশ কয়েকটি  প্রাথমিক ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় ঘুরে দেখা যায় : স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিক্ষার্থীরা বিদ্যালয়ের গেইটে সারিবদ্ধ ভাবে দাঁড়িয়ে আছে। থার্মোমিটার দিয়ে তাপমাত্রা নির্ণয় করে মুখে মাস্ক পরিহিত একজন করে হাতে হ্যান্ড স্যানিটাইজার, জুতায় স্পে করা হচ্ছে। তারপর তাদেরকে বিদ্যালয়ে প্রবেশ করানো হচ্ছে।মোয়াজ্জেমপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৪র্থ শ্রেণির ছাত্রী মোছা.আফরিন আক্তার বলেন,দীর্ঘদিন পর স্কুলে এসে ভালোই লাগছে। বন্ধু বান্ধবের সাথে অনেকদিন দেখা হয়নি আজ (রবিবার) দেখা করতে পেরে নিজেকে ভাগ্যবান মনে হচ্ছে।আমিনুল ইসলাম আশিক নামের এক অভিভাবক জানান, স্কুল বন্ধ থাকায় ছেলে মেয়েদের পড়াশোনা অনেক ক্ষতি হয়েছে। যাইহোক স্কুল খুলে দেওয়াতে ছেলে মেয়েদের পড়ার টেবিলে বসানো যাবে। তবে দীর্ঘদিন বন্ধ থাকায় পড়াশোনার ব্যাঘাত ঘটেছে।নান্দাইল উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা মো.আশরাফ আলী ছিদ্দিক জানান, সরকারী নির্দেশনা মোতাবেক শিক্ষাপ্রতিষ্টান খোঁলা হয়েছে। শিক্ষার্থীদের স্বাস্থ্য সুরক্ষায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে শিশুদের বিদ্যালয়ের ক্লাস রুমে নেওয়া হয়েছে।
নান্দাইল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মো. রুকন উদ্দিন জানান, মাস্ক ছাড়া কেউ ক্লাস রুমে প্রবেশ করবে পারবে না। সকল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। শিফট অনুযায়ী প্রতিদিন ক্লাস নেওয়া হবে।