কেন্দুয়ায় জমিতে খাবার খেতে মারা গেল ৪শ হাঁস

কেন্দুয়ায় জমিতে খাবার খেতে মারা গেল ৪শ হাঁস

এ কে এম আব্দুল্লাহ, নেত্রকোনা ঃ ধান কাটা শেষে পরে থাকা পরিত্যক্ত জমির খাবার খেয়ে রহস্যজনক ভাবে এক খামারের প্রায় ৪শ হাঁসের করুণ মৃত্যু হয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে রবিবার দুপুরে নেত্রকোনা জেলার কেন্দুয়া উপজেলার বলাইশিমুল ইউনিয়নের ছাবিলা গ্রামে।
স্থানীয় এলাকাবাসী ও পুলিশ সূত্রে জানা যায়, ছবিলা গ্রামের আবুল হাসেম ও আবুল কাশেম দুজনে মিলে একটি হাঁসের খামার গড়ে তুলে। সেই খামারে প্রায় ১৭শ হাঁস লালন পালন করা হচ্ছিল। প্রতিদিনের মতো রবিবার সকালে হাঁসগুলোকে খামার থেকে বের করে ধান কাটা শেষে পরে থাকা পরিত্যক্ত জমিতে খাবার খাওয়াতে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে একই গ্রামের এলাছ মিয়ার পরিত্যক্ত জমিতে খাবার খাওয়ার সময় হঠাৎ করে একের পর এক হাঁস মরতে শুরু করে। বিষয়টি টের পেয়ে হাঁসের মালিক আবুল কাশেম জীবিত হাঁসগুলোকে তাড়িয়ে বাড়িতে খামারে নিয়ে যায়। ততক্ষনে প্রায় ৪শ’র মতো হাঁস মারা যায়।
এ বিষয়ে হাঁস খামারের মালিক আবুল কাশেসের সাথে কথা হলে তিনি কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলেন, আমাদের সব শেষ হয়ে গেছে। কি কারণে এতোগুলো হাঁস মারা গেলো বুঝে উঠতে পারছি না। মৃত হাঁসের কোনো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করানো হয়নি। মৃত হাঁসগুলোকে মাটিতে পুঁতে ফেলা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায়ও কোনো অভিযোগ করিনি।  

         খবর পেয়ে সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (কেন্দুয়া সার্কেল) মাহমুদুল হাসান ও কেন্দুয়া থানার ওসি মোহাম্মদ রাশেদুজ্জামান রবিবার বিকালে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
সিনিয়র সহকারি পুলিশ সুপার (কেন্দুয়া সার্কেল) মাহমুদুল হাসানের সাথে কথা বললে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, কি কারণে ৪শ হাঁসের মৃত্যু হয়েছে তা এই মূহুর্তে নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। বিষ ক্রিয়া, ব্যাকটেরিয়া জনিত কারণ কিংবা পরিত্যক্ত জমির মাত্রাতিরিক্ত ক্যামিকেলের কারণেও হাঁসগুলোর মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। মৃত হাসগুলো এতো তাড়াতাড়ি মাটিতে না পুতে প্রাণি সম্পদ হাসপাতালে পরীক্ষা নিরীক্ষা করানোর দরকার ছিল।